February 26, 2024

লিটল উইমেন – লুইসা মে এলকট

 

বইয়ের নাম: লিটল উইমেন
লেখিকা: লুইসা মে এলকট
রুপান্তর: মোস্তফা হামিদ
প্রকাশনী: পাঞ্জেরী
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১৬০
রেটিংঃ ৫/৫

অতি সাধারণ মার্চ পরিবার৷ মিসেস মার্চ এবং বাবা মিস্টার মার্চের চার মেয়ে মেগ, জো, বেথ এবং এমি। সাধারণ এই পরিবারটির বৈশিষ্ট্য হলো পরোপকারিতা এবং সহমর্মিতা।

মিস্টার মার্চ আমেরিকার সেনাবাহিনীর সৈনিক পরবর্তিতে যুদ্ধক্ষেত্রের সৈনিকদের ধর্মযাজক হিসেবে নিয়োজিত হন। কর্মসুত্রে তিনি বাড়ির বাইরে থাকেন। বন্ধুকে সাহায্য করতে গিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ খুইয়ে বসেন এবং সেই কারণে মার্চ পরিবারের সদস্যাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। মিসেস মার্চ সর্বদা মেয়েদের প্রতি যত্নশীল থাকেন এবং চার মেয়ের সাথে তার সম্পর্ক বন্ধুত্বপূর্ণ।

সবার বড় মেগ। সে স্বচ্ছল এবং বিলাসি জীবনযাপন পছন্দ করে। মেঝো মেয়ে জো, সে বাস্তববাদী, কঠোর পরিশ্রমী। মূলত উপন্যাসটি তাকে ঘিরেই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আবর্তিত হয়েছে৷ লেখালেখি তার প্রিয় কাজ এবং এটাই তাকে একদিন সফলতার মুখ দেখায়। সেঝ বেথ, পরোপকারি এবং স্বল্পভাষী মেয়েটি দুরারোগ্য ব্যাধিতে মারা যায়। সবার ছোট এমি। সে প্রচন্ড জেদী। চারবোনের মধ্যে সেই সবচেয়ে বেশী মেধাবী। তার স্বপ্ন চিত্রশিল্পী হওয়ার।

মার্চ পরিবারের প্রতিবেশী মিস্টার লরেন্স এবং তার নাতি লরি। নিঃসঙ্গ লরির সাথে মার্চ পরিবারের সদস্যদের সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে।

লিটল উইমেন একটি অতি সাধারণ উপন্যাস হলেও আমার কাছে তা অসাধারণ। কারণ লেখিকা লুইসা মে এলকট সাধারণ একটি পরিবারের প্রতিটি সদস্যদের সুখ, দুঃখ, আশা এবং স্বপ্নকে নিখুঁত ভাবে বিন্যাস করেছেন এবং চার বোনের জীবনের পরিণত অধ্যায়টিও দেখিয়েছেন। মূলত এখানেই লেখিকার সার্থকতা। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত জানতে হলে বইটি পড়তে হবে।

পাঞ্জেরি সচিত্র কিশোর ক্লাসিক সিরিজের ১০ নম্বর বই লিটল উইমেন (পেপারব্যাক)। রুপান্তর করেছেন মোস্তফা হামিদ। এই সিরিজটি মূলত ছোটদের জন্য৷ বোধগম্য অনুবাদ এবং সংশ্লিষ্ট ছবির জন্য বাচ্চারা পড়ে বেশ আনন্দ পাবে। বড়দের ভালো না লাগতে পারে। আমি সাজেস্ট করবো মূল বইটি পড়তে। তাহলে আরও ভালো লাগবে।

Sukanya Naz Islam
Volunteer Content Writer
Writer’s Club BD

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *