February 26, 2024

বাতাসে বৃষ্টির ঘ্রাণ : শরীফুল হাসান – Batase Bristir Ghran – Shariful Hasan

Title বাতাসে বৃষ্টির ঘ্রাণ
Author শরীফুল হাসান
Publisher অন্যধারা
ISBN 97898495626022
Edition 1st Published, 2022
Number of Pages 416
Country বাংলাদেশ
Language বাংলা

আবারো মুগ্ধ হলাম ভীষণ মায়াবী লেখনশৈলীর জন্য। আরো একবার মুগ্ধ করলেন লেখক। আরও একবার লিখেছেন এমন এক বই, কন্টেম্পরারী/সমকালীন সাহিত্যের বিচারে যা সর্বোচ্চ বললে অত্যুক্তি হয় না। পড়ার সময় আমি পাতার পর পাতা উল্টে গেছি উপন্যাসের। উপন্যাস টা শীর্ষেন্দু বা বিভূতিবাবুর সেই সমস্ত উপন্যাসের মতো, যেখানে আমার মোটেই ইচ্ছা করে না পেজ তাড়াতাড়ি উলটে দেখে আসি কি হয়েছে। বরঞ্চ ইচ্ছে করে চলুক এ উপন্যাস। উপন্যাস টা কিংবা সেই পটভূমির বৃষ্টিস্নাত সেই পরিবেশ টা আমার জন্য অনেক আবেগের। কারন আমার বন্ধন ব্রহ্মপুত্রের সাথে জন্মগত। আমার জন্ম ময়মনসিংহ মেডিকেল হাসপাতালে।


❝একাত্তরে পরিবার হারানো এক শিশু, একের পর এক উত্থান পতনে তার বেড়ে উঠা। কখনও আলবার্ট পিন্টো, কখনও পিন্টু কিংবা গৌরহরি, জীবনের সব কিছু দেখতে দেখতে, স্রোতের সাথে এবং বিপরীতে সাঁতার কাটতে কাটতে জীবন তাকে কোথাও স্থির হতে দিতে চায় না। কিন্তু সে তো শেকড়ের সন্ধান চায়, চায় স্থিরতা, বাকি সব সাধারণ মানুষের মতো সাধারণ জীবন। যেখানে তাকে অভিনয় করতে হবে না। সেই জীবন কী শুধুই বাতাসে ভেসে বেড়ানো এক কল্পনা!


পূরবী, অনেক বড় স্বপ্ন মেয়েটার। পিন্টু কিংবা পিন্টোর সমান্তরালে তার জীবনে কালো ঝড়ের মতো আসে সেলিম খান। তার স্বপ্ন কী পূরণ হয়েছিল? কিংবা…
আবু জামশেদ, চ্যালেঞ্জ নিয়েছে কেস সমাধান করবেই। ব্রক্ষপুত্র নদীর তীরে পোড়া যে মৃতদেহ, সেটা আসলে কার?❞


লেখক এ উপন্যাসে নিজের যাপিত জীবনের অভিজ্ঞ্যতার ঝুলি পাঠকের সামনে খুলে দিয়েছেন বলে আমার মনে হয়েছে। আবারো তার একটা উপন্যাসে বাধা পড়েছে রাজনৈতিক চলমান সংস্কৃতি, অন্যায় অবিচার, নেশা,মাদক, তৎকালীন সময়ে যুব সমাজের অবস্থা ও একটি খুন। এই উপন্যাস টা ঠিক এমন উপন্যাস যেটা কি হতে যাচ্ছে বুঝে গিয়েও আমি লেগে থেকেছি আঠার মতো কারন আমি অনুভব করেছি, মোটাদাগের একটা রহস্যের সমাধানের এক লাইন বলার জন্য এই উপন্যাস না। এই উপন্যাস টা মূলত এই দেশের একটা সময়ের। একটা যুগ বা একটা সময়কে উপন্যাস টা অভিজ্ঞ্যতার দলিল হিসেবে ধারণ করে বলা যেতে পারে। উপন্যাসের আলাদা নামের আলাদা বেশ অনেক অধ্যায় আমাকে ভাবিয়েছে অনেকটা সময়।


উপন্যাসের প্লট মাথায় কশাঘাত দেওয়ার মতো। আমাদের চিন্তাচেতনা, লেখালেখি বা পড়াশুনায় যে সেন্সেটিভ ফিচার টা আসে সেটা হলো ‘যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা’. কিন্তু যে ফিচার টা নিয়ে আমরা কথাবার্তা কম বলি সেটা হইলো ‘যোদ্ধাহত শিশু’ বা যোদ্ধাহত কিশোর। এই গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র যোদ্ধাহত কিশোর যা শুরুতেই আমাকে আঠার মতো আটকে দিলো উপন্যাস টার সাথে।


কালভেদে, সময়ের স্রোতে সমাজের টানাপোড়েন পালটায় অল্প অল্প করে। এতে আমরা আসলে ঠিক কোন দিলে এগোই? সুশীলতা স্বশিক্ষার দিকে না শিক্ষিত অনৈতিকতার দিকে? মূলত এক সময়ে এদেশে এসিড নিক্ষেপ, চাদাবাজি, ইভটিজিং ফেনসিডিল জাতীয় নেশা দ্রব্য ইন্ট্রোডিউস হয়েছে, সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় পালিয়ে বিয়ে করা, জোরপূর্বক বিয়ে দেওয়া, ভিন্ন ধর্মের কারো সাথে জড়িয়ে পড়ার পরে পরিবার থেকে মেনে না নেওয়া- উলটো হুমকি ধামকি মারামারি, সংখ্যালঘু হিন্দুদের উৎপাত ও খেদানোর চেষ্টা এবং এসব নিয়ে সমাজ টানাপোড়েনের মধ্য দিয়ে গেছে। সে সমস্ত গল্প এই উপন্যাসে বলা হয়েছে এবং বলার ঢং মসৃণ চামড়ার মতো। উপন্যাসে কোনো একটা চরিত্র কোনো একটি কাজ করেছে। পরবর্তীতে সে কাজ জাস্টিফাই করতে থাকে সেটা বাহুল্য মনে হয়।


সবচেয়ে বড় কথা, বিষন্নতার যে স্ফুলিঙ্গ এ উপন্যাসে তৈরি করা হয়েছে, সেটার ফলে উপন্যাস টা মনঃমুগ্ধকর। উপন্যাসের প্রতিটি গল্পে সাহিত্যরস ব্যাপকভাবে আস্বাদন করেছি।
লেখকের তীক্ষ্ম অবজারভেশান পাওয়ারের ছাপ আছে পেয়েছি পুরো উপন্যাসেই। উৎকণ্ঠা আছে।


অনিশ্চয়তা আছে। শিরোনামগুলো অধ্যায়গুলোর সাথে সম্পূর্ণ সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং মায়া মায়া ভাব আছে অনেক গুলোতেই। অধ্যায়ের শিরোনাম গুলোর মধ্যে ‘বিসর্জন’ শিরোনাম, আর সে অধ্যায়ের তার শেষ লাইন আমাকে সবচেয়ে বেশি ছুয়ে গেছে। মনে হয়েছে যা লেখক বলতে চাচ্ছিলেন এক্সাক্টলি সেটাই তিনি বলেছেন। বিচক্ষণতার সঙ্গে উপন্যাস লিখেছেন যে, আমার মনে হয়েছে, বাংলা সাহিত্য অভিমুখে কালোত্তীর্ণ কোনো যাত্রায় শরীক হয়ে গেছেন তিনি।


❝বাতাসে বৃষ্টির ঘ্রাণ❞ বইটি অন্যধারা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত। প্রচ্ছদ করেছেন সজল চৌধুরী। লেটারিং খুব ভালো লেগেছে। আমি বরাবর বই হাতে নিয়ে প্রচ্ছদে হাত বুলিয়েছি। বইটির মুদ্রিত মূল্য ৬৪১ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *