March 1, 2024

থ্রি টেন এ এম – সালমান হক

বইঃথ্রি টেন এ এম-3:10AM(নিক পিরোগ)
অনুবাদঃসালমান হক
রিভিউ লেখিকাঃ ফায়েজা সুলতানা পিউ

“হেনরি বিনস” থ্রি এ এম সিরিজের রিভিউ থেকে আমরা জানতে পেরেছি হেনরি বিনস দিনে চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে তেইশ ঘন্টা ঘুমিয়ে থাকে আর জেগে থাকে মাত্র এক ঘন্টা। তার যাবতীয় দৈনিক সব কাজ ঐ এক ঘন্টার মধ্যেই সেড়ে নেন।
হেনরি বিনসের তার বাবাই সব ছিলেন,প্রেসিডেন্টের সমস্যা টা সল্ভ করার পর আপনের দলে যোগ হয়েছে তার প্রেমিকা ইনগ্রিড।হেনরি বিনসের মা তার ছোট বেলাতেই তাকে ছেড়ে চলে যান।তিনি একটা সংগঠন কে প্রতিমাসে টাকা দিতে তার মায়ের খুঁজ করার জন্য। হঠাৎ একদিন ঐ সংগঠন থেকে খবর আসলো একজন মহিলার লাশ পাওয়া গেছে তার বাড়ি থেকে কয়েক মাইল দুরে একটি সাগরে যার হাতের ফিঙ্গারপ্রিন্ট এর সাথে হেনরির মায়ের ফিঙ্গারপ্রিন্ট এর সাথে মিলে।তার মাবে ঐ মহিলা ছিলো হেনরি বিনসের মা। হেনরি বিনস তার মায়ের লাশ তদন্ত করতে গিয়ে জানতে পারে তার মায়ের উপর চার নম্বর মহা বিপদ সংকেত ঝুলছিলো,যা একজন সন্ত্রাসী উপর থেকে থাকে।হেনরি বিনস বুঝতে পারে তার মা হয়তো একজন সন্ত্রাসী ছিলো।মা তাদের ছেড়ে চলে গেলেও তার একটু কষ্ট লাগে এটা শুনার পর।হাজার হোক মা তো মা-ই।একদিন তার মনে পড়ে তার জন্য একটা পার্সেল এসেছিলো যেটা তার বাবা বা সে অর্ডার করেনি।সে কেন যেন ওটা নিয়ে দেখতে লাগলো সে বুঝে যায় এটা নিশ্চয়ই তার মা পাঠিয়েছে। এবং সে গভীর অনুসন্ধান করে বের করে তার মা আসলেই কোন সন্ত্রাসী ছিলো কি,কেবা কারা তার মাকে হত্যা করেছে,হেনরি যখন তার বাবাকে বলে তার মা সন্ত্রাসী তখন তিনি বলেন আসলে তার মা ছিলেন একজন সিআই এর গুপ্তচর।এটা শুনার পর হেনরি বিশ্বাস করুক না করুক আরো অনুসন্ধানে নামে।যেখান থেকে আরো কিছু ক্লু পাই সে তার মা সন্ত্রাসী না একজন গুপ্তচর।এই ক্লু এর মাধ্যমে সে কিছু গুপ্ত কারাগারের কথাও জানতে পারে,যেখানে বন্ধীদের গোপনে টর্চার করা হতো,যেটা একদম বেআইনি।এবার তার মাথায় ভাবনা আসে তার মা যদি গুপ্তচর হয় তাহলে তাকে খুন করা হলো কেন?এই বিষয়ে সে কথা বলতে দেখা করে প্রেসিডেন্ট এবং সিআই এর ডিরেক্টর লেহায় এর সাথে এবং ওদের সাথে কথা বলার এক পর্যায়ে সিআই এর ডিরেক্টর লেহায় কে তার মায়ের খুনি বলে দাবি করে।এতে প্রেসিডেন্ট এবং সিআই এর ডিরেক্টর ভিষণ রেগে যায়।এবং হেনরি বিনস এর পেছনে লোক লাগিয়ে দেই।
হেনরি বিনস ওদের চোখ কে ফাঁকি দিয়ে নেমে পড়ে তার মায়ের দেওয়া ক্লু অনুসারে সেই গুপ্ত কারাগারের সন্ধান করতে।এবং পেয়েও যায়,কিন্তু শেষ মুহুর্তে সে লেহায়ের কাছে ধরা পড়ে এবং তাকে বন্ধী করে টর্চার করতে থাকে।বন্ধী অবস্থায় লেহায়ের কাছে জানতে পারে তার নিজের এই তেইশ ঘন্টা ঘুমের পেছনে তার মায়ের হাত রয়েছে। এতে হেনরি বিনস খুব অবাক হয়,এবং প্রেসিডেন্ট থেকে হেনরি আরো জানতে পারে তার মা আসলে মারা যায় নি,তিনি বেঁচে আছেন।হেনরি এও জেনে গেছে তার পিছনে লোক লাগানো তার কথা প্রাচার করা সব কিছুতে তার প্রেমিকা
ইনগ্রিড এর ও হাত আছে।

সত্যি কি হেনরির ঘুমের পিছনে তার মা দায়ী?
তার মা কি আদো বেঁচে আছে নাকি প্রেসিডেন্ট এর নতুন চাল এটা?
হেনরির পিছনে লোক লাগানো তাকে অত্যাচার করা এসবের পিছনে সত্যি কি ইনগ্রিড এর হাত আছে নাকি এও মিথ্যা??
যদি এসব সত্যি হয় তাহলে হেনরি বিনসের করণীয় কি বা সে কি করবে সব কিছু জানতে হলে পড়তে হবে 3:10 AM বইটি।

সত্যি 3:00 AM সিরিজ বেস্ট থ্রিলার গল্প বলে আমি মনে করি। আপনারাও পড়তে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *