February 26, 2024

তোত্তোচান – তেৎসুকো কুরোয়ানাগি

বই~ তোত্তোচান
লেখক~ তেৎসুকো কুরোয়ানাগি
রেটিং-৫/৫

বাচ্চাদের কিছু জোর করে শেখানো যায় না। এটা বধয় আমরা সবাই জানি। বাচ্চা রা অনুকরণ করে শেখে। তোত্তোচান এমন একটা বাচ্চা যাকে কোনো জিনিস হাজার বললেও শেখানো যায়না,কিন্তু তাকে একটু আদর ভালোবাসা দিয়ে বুঝালেই সে শিখে যায়।

তোত্তোচান এর জগৎ ছিলো একদম ভিন্ন। সে তার জগতে কল্পনায় উড়ে বেড়াতো।স্কুলের পড়া বাদ দিয়ে জানালার ধারে দাঁড়িয়ে থাকতে বাচ্চা মেয়েটির ভালো লাগতো। একটু চঞ্চল আর শৈশবের দুরন্তপনার কারনে অমনোযোগী বলে স্কুল থেকে তাকে বের করে দেয়া হলো। স্কুল থেকে বের হওয়ার পরই তোত্তোচান পেলো এক সুবর্ন সুযোগ। তার বাবা মা তাকে তোমায়ে গাকুয়েন নামে নতুন স্কুলে ভর্তি করলো। এই স্কুলের প্রধান শিক্ষক সোশাকু কোবাইয়াশি ছিলেন অত্যন্ত চিন্তাচেতনার মানুষ। তিনি তোত্তোচান কে অনেক ভালোবাসতেন। শুধু তোত্তোচান নয় স্কুলের প্রতিটি শিশুকেই তিনি ভালোবাসতেন। পোলিও রোগে আক্রান্ত ইয়াসুয়াকে তিনি অনেক ভালোবাসতেন যেমন তোত্তোচান কে ভালোবাসতেন।

তোত্তোচানের এই তোমায়ে গাকুয়েন দ্বিতীয় স্কুলটি ছিলো একদম ভিন্ন ধারার। বইটি পড়লে যে কারোরই ইচ্ছে করবে এই স্কুলের ছাত্রী হতে। আমারও বারবার মনে হয়েছে আমি যদি এই স্কুলে পড়তে পারতাম।এই স্কুলে ক্লাসের জন্য ধরা বাধা কোনো নিয়ম নেই। বাচ্চাদের ক্লাসরুম ছিলো পুরোনো রেলগাড়ির কামরা। এই স্কুলে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুরাও পড়তো,কিন্তু কখনোই তাদেরকে আলাদা চোখে দেখা হতো না। সোশকু কোবাইয়াশি চিন্তা করতেন যার হৃদয় থাকবে কিন্তু সেই হৃদয়ে ভালোবাসার স্ফুলিঙ্গ থাকবেনা,যার শ্রবনক্ষমতার জন্য কান থাকবে কিন্তু সে গান শিখবে না,যার চোখ থাকবে কিন্তু সে জগতের সৌন্দর্য দেখতে পাবে না। এরকম পৃথিবী ভবিষ্যৎ এ তৈরি হওয়া ভয়ংকর,যে কারনেই তিনি তার স্বপ্নের স্কুল তোমায়ে গাকুয়েন তৈরি করেন। যেন প্রতিটি শিশুদের মাঝে সত্যের চর্চা এবং নিজস্ব স্বাধীনতার মাধ্যমে তারা তাদের পড়াশোনা ও জীবন এর চাহিদা তারা পূরন করতে পারে।

এই স্কুল থেকেই ভালোবাসা,দায়িত্ববোধ,আনন্দ,শোক সবকিছুই উপলব্ধি করতে শেখে প্রজাপতির মতো উড়ে বেড়ানো ছোট্ট তোত্তোচান।

আরেকটা মজার পয়েন্ট হচ্ছে স্কুলের টিফিন পিরিয়ড। প্রধান শিক্ষক কোবাইয়াশি টিফিনে।বাচ্চাদের কে সাগর,পাহাড় থেকে নিয়ে আসা খাবার খাওয়াতেন। এবং খাওয়ার সময় চুপ না থেকে কিভাবে গান গাইতে গাইতে খাওয়া যায় সেটাও বাচ্চাদের মজার মাধ্যমে এমন সব চমৎকার পদ্ধতির মাধ্যমে শিক্ষা দিয়েছেন। বইটা নিয়ে বলতে গেলে শেষ হবেনা।যারা পড়েন কি তাদের কে বলবো বইটা পড়া উচিত। নিজের ছোটবেলায় ঘুরতে চাইলে তোত্তোচান এর স্বপ্নের রেলগাড়ি তে উঠে পড়ুন।

পাঠ প্রতিক্রিয়া:
এই বইটা পড়ার সময় আমি আমার ছোটবেলায় ফিরে গিয়েছিলাম। আর আমি আমার নিজের চরিত্র কে খুজে পেয়েছি তোত্তোচান এর মাঝে। আমিও ছোটবেলায় তোত্তোচান এর মতোই এমন চঞ্চল ছিলাম। মনে হচ্ছিলো আমি আমাকেই পড়ছি। তবে প্রথম স্কুলের ব্যবহার এ খুব মন খারাপ হয়েছিলো মিষ্টি তোত্তোচান এর জন্য। বইটা আসলেই এত

চমৎকার যে পড়েই আনন্দ পাওয়া যায়। বইটি একটি জাপানিজ বই। আশ্চর্য সুন্দর এক বই। বইটা পড়ার মাঝে এই বই আপনাকে নিয়ে যাবে মধুর শৈশবে,আপনার ছোটবেলার স্কুলের দিনগুলোতে। অনেক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই অনুবাদক চৈতি রহমান কে এত সুন্দর বইটি অনুবাদ করার জন্য।
Credit: Momo A PainterReader

বইঃ তোত্তো-চান
অফার মূল্য ১৮০৳

অর্ডার করতে ইনবক্সে যোগাযোগ করুন!
সারাদেশে ১-৩ দিনে কুরিয়ার করা হয়🤍

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *