February 26, 2024

জাফরানি ঘ্রাণ – নুসরাত তাজরি

 

বইয়ের নামঃজাফরানি ঘ্রাণ
লেখিকাঃ নুসরাত তাজরি
প্রথম প্রকাশঃএকুশে বইমেলা,২০২২
প্রকাশনীঃঅনুজ প্রকাশনী
পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ১৬০

কাশ্মীর কেন্দ্রিক উপন্যাস টিতে ১৮ টি পার্ট রয়েছে।জাফরানি ঘ্রাণ এক ছুটন্ত জীবন দর্শন।
এর পরতে পরতে ছড়িয়ে আছে জাফরানি সুবাস-জাফরানি ঘ্রাণ।এই ঘ্রাণের জগতে আপনাকে স্বাগতম!

আনিকা নাওয়ার সংক্ষেপে এ্যানি
এই উপন্যাসের মূল চরিত্র ।জীবনের ছাব্বিশটি বসন্ত শেষে নীরবতাই এখন তার প্রিয় শব্দ হয়ে উঠেছে।কিন্ত কেন? কেন সে পারেনি?

এ সব ভাবতে ভাবতে শহরের বাইরে তার পূর্বপুরুষদের নিভৃত পল্লিতে মন ছুটে গেল।একদিন ভাই আয়মান কে নিয়ে উদ্দেশ্যহীন যাত্রা শুরু করে।শহর ছেড়ে খানিকটা দূরে যায়।যেখানে দেখতে পায় অনেক গুলো বাচ্চা খেলছে। যেটি ছিল এতিম ও গৃহহীনদের স্কুল। এখানে সে প্রায় আসে।ভালো লাগলেও আসে,না লাগলেও আসে।ভাবে তাদের অসহায়ত্বের কথা।

এরপর নভেম্বর মাসের একদিন হঠাৎ নয়াদিল্লি যাবার সিদ্ধান্ত নেয় এ্যানির মা।যাত্রা শুরুর করেছে ঠিকি কিন্ত শেষটা অজানা।তার মা জানেন কিন্ত কিছু বলছেন না। এর কারণ কি? আর তার বাবার ফাইলে মোড়া ডায়রিতেই বা কি আছে?

নয়াদিল্লি যাবার পর মা আর ভাইকে নিয়ে কাশ্মীরে উইন্টার ভ্যাকেশনের ১৫ দিন কাটাবার কথা ভাবে এ্যানি।নয়াদিল্লি থেকে কাশ্মীর দুই ঘন্টার পথ। প্রায় ২৫ বছর পর যাচ্ছে তার মা।
এক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কাশ্মীরেই পেয়েছিল এ্যানি কে তার বাবা। তখন ছিল সে শিশু। এরপর থেকে সে নাওয়ার পরিবারে বেড়ে উঠেছে। নাম এর সাথে যুক্ত হয়েছে নাওয়ার পদবি।
মেয়েটির আসল মা-বাবা তাহলে কারা? কি তার আসল নাম? কিভাবেই না সে নাওয়ার পরিবারবের সাথে যুক্ত হলো?

কাশ্মীর এসে যখন সে দেখা পেলো তার জন্মদাত্রী মার।এরপর কি কি সে জানতে পারলো?
সেখানে কি হলো? সে কি আসল মায়ের কাছে সেখানে থেকে গেলো?

এত কিছুর মাঝে রাজন নামের একটি ছেলের দেখা পাবেন। এ্যানিকে নাকি সে অনেক ভালোবাসে। আসলেই কি সে ভালোবাসে? নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য উদ্দেশ্য?

বিস্তারিত সব জানতে উপন্যাসটি অবশ্যই পড়তে হবে আপনাদের 😊
এক সময়কার উপন্যাস গুলি লুকিয়ে পড়তে হত এটি সেরকমটি নয়।ছোট,বড় সকলেই পড়তে পারবে।পরিবারের সবাইকে নিয়ে পড়ার মত এবং কাউকে গিফট দেয়ার মত একটি উপন্যাস 😇

©️Shaila Arafat

Shaila’s Thoughts 💙

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *