February 25, 2024

অবাধ্যতার ইতিহাস : ডা. শামসুল আরেফীন | Obaddotar Itihash

যে ব‌ই নিয়ে আলোচনা হ‌ওয়া দরকার

ইতিহাসের আয়নায় বর্তমান বিশ্বব্যবস্থা” ব‌ইটি নিয়ে শক্তি ভাইয়া বলেছিলেন- “দুনিয়াটা বোঝার জন্য এই ব‌ই পড়ার পর অন্য কোনো ব‌ই না পড়লেও চলবে।” কিন্তু,শক্তি ভাইয়ার “অবাধ্যতার ইতিহাস” ব‌ইটা পড়ার পর মন বললো,না শুধু ঐ ব‌ইটা পড়লেই চলবে না সাথে এই ব‌ইটা নিয়েও পড়া দরকার, আলোচনা দরকার।

বনী ইসরাইল ইতিহাসের অবাধ্যতম জাতিসমূহের একটি কিন্তু তারাই তো একমাত্র অবাধ্য জাতি নয়।যুগে যুগে কালে কালে অবাধ্য জাতি তৈরি হয়েছে,আল্লাহ প্রদত্ত জীবনবিধানকে তারা নিজেদের মতো সাজিয়ে নিজেদের স্পর্ধা দেখিয়েছে এবং আল্লাহর ওয়াদা মোতাবেক শেষ নবী মুহাম্মদ ﷺ আসার পর‌ও তাদের অবাধ্যতা থেকে বিরত হয়নি।আর এই অবাধ্যতার যে দীর্ঘ ইতিহাস রচিত হয়েছে বিগত শতাব্দীগুলিতে তাইই নিয়ে লেখক দীর্ঘ আলোচনা করেছেন,দেখিয়েছেন কিভাবে ইউরোপ ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করেছে, নিজেদের জন্য ব্যবহার করেছে।
যার ফলস্বরূপ এক পর্যায়ে ধর্মের বিরুদ্ধে তাদের বিতৃষ্ণা তৈরি হয়েছে,আর একটা একটা করে বিশৃঙ্খলা ও দুর্যোগ তাদের হানা দিয়েছে। অনেকেই রেঁনেসা যুগের গল্প শুনেন কিন্তু কিভাবে তারা এই পর্যায়ে এলো তা জানার ব্যাপারে আমাদের আগ্রহ খুবই কম। অথচ এই পথটা গুরুত্বপূর্ণ আর সেটা নিয়ে লেখক খুব ভালোভাবেই কাজ করেছেন,বলতেই হয় পাঠকদের চমৎকার একটা কাজ উপহার দিয়েছেন।

লেখক পরবর্তীতে ব্যক্তি,পরিবার,সমাজ হয়ে রাষ্ট্র পর্যন্ত ধর্ম তথা আল্লাহ প্রদত্ত জীবনব্যবস্থার বিস্তৃতি দেখিয়েছেন, দেখিয়েছেন রাষ্ট্র পর্যায়ে ধর্ম কতোটা গুরুত্বপূর্ণ ও প্রভাব বিস্তারকারী। মানবসভ্যতার কল্যাণের জন্যই যে ইসলামের আবির্ভাব তা যেন বুঝিয়ে দিয়েছেন সাবলীল আলোচনায়।অবাধ্যতার যে ইতিহাস পশ্চিমা দুনিয়া রচনা করেছে তার ফাঁদ থেকে উম্মাহকে উদ্ধারের প্রচেষ্টাই যেন “অবাধ্যতার ইতিহাস”

ব‌ই: অবাধ্যতার ইতিহাস
লেখক : ডা. শামসুল আরেফীন
প্রকাশনী : সমকালীন প্রকাশনী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *