February 26, 2024

জীবনের আয়না – মাহমুদ বিন নূর

 

বইয়ের নামঃ জীবনের আয়না
লেখকঃ মাহমুদ বিন নূর
প্রকাশনায়ঃ রাইয়ান প্রকাশন
পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১৭৬

কিছু ভুল, আমাদের ব্যক্তিত্ব নষ্ট করে। কিছু ভুল আমাদের আত্মপরিচয় ভুলিয়ে দেয়। কিছু ভুল আমাদের সফলতার প্রতিবন্ধকতা এবং খেসারত দিতে হয়— ব্যক্তিগত জীবনে, পারিবারিক জীবনে, সামাজিক জীবনে ও ধর্মীয় জীবনে।

বইটিতে সচারাচর যে ভুল গুলি করা হয় এবং যে আদব গুলি জানা উচিত এমন ৮৫ টি ভুল, তার সমাধান এবং আদব-কায়দা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।তার মধ্যে থেকে কিছু উল্লেখ করা হলোঃ

👉”আমি’ টা কে?
কারো বাসায় বেড়াতে গেলেন দরজার ওপাশ থেকে জিজ্ঞেস করা হলো কে? আপনি উত্তর দিলেন ‘আমি’। ওপাশের মানুষটি চিনতে না পেরে বিরক্ত হলেন এবং রেগে গেলেন।আপনি যদি ‘আমি অমুক’ বলে উত্তর দিতেন তাহলে সে চিনতে পারত সহজেই রেগে যেতেন না।

👉একজনকে বাদ দিয়ে দুজনে কানাকানি কথা বলা
অভ্যাসটি খুবই খারাপ এবং দেখতেও বাজে দেখায়।শিষ্টাচার ও লঙ্ঘন হয়।এজন্য আমাদের এ ব্যাপারে সর্তক থাকা উচিত।

👉নিজের পাপ অন্যকে বলে বেড়ানো

আমাদের সবারই কিছু না কিছু গুনাহ হয়েই থাকে।আমরা গুনাহের মধ্যে লিপ্ত হই; আর আল্লাহ তা’আলা উক্ত গুনাহের মাঝে পর্দা মেরে দেন।তিনি গোপন রাখেন কিন্ত আমরাই নিজেদের গুনাহ উম্মোচন করে দেই।গুনাহ কখনো অন্যের নিকট প্রকাশ করবেন না।গুনাহ করলে সাথে সাথে তওবা করে নিতে হবে।

👉বায়ু নির্গমনের শব্দ শুনে হাসা
ধরেন কয়েকজন বন্ধুরা মিলে গ্রুপ স্টান্ডির সময় হঠাৎ একজনের থেকে বায়ু নির্গমন হলো।
সবাই তার দিকে হা করে তাকিয়ে তাকে নিয়ে হাসাহাসি শুরু করে দিল।সে খুবই লজ্জা পেল এবং মাথা নিচু করে ফেলল।

জনসম্মুখে বায়ু নির্গমন করা ঠিক নয় কিন্ত বায়ু নির্গমন একটি প্রাকৃতিক বিষয়। যেকোনো ব্যাক্তির হতে পারে এটাই স্বাভাবিক।তাই বলে হেসে কাউকে কস্ট দেয়া উচিত নয়।আদব হচ্ছে,তা এড়িয়ে যাওয়া, শুনে ও না শুনার ভান করা।

👉এটা কোনো হাদিয়া হলো!

এই কথাটি আমরা অনেকেই বলে ফেলি কেউ সাধারণ কিছু হাদিয়া দিলে।তারা মনে করে দামী কিছু দিলেই সেটা হাদিয়া। হাদিয়া যেমনই হোক, তা আদান-প্রদানের মাধ্যমে পরস্পর ভালো সম্পর্ক গড়ে উঠে।এদিক মাথায় রেখে,আমরা সকলেই হাদিয়া স্বল্পমূল্যের হলেও তা গ্রহণ করব এবং অন্যকে প্রদানে উৎসাহিত করব।

👉মা-বোনের রুমে প্রবেশ করতে অনুমতি চাওয়া
বিবেকসম্পন্ন ব্যক্তিরা জানি যে, কারো রুমে প্রবেশ করার জন্য তার অনুমতি নিতে হয়।
কারণ সে কি অবস্থায় আছে তা আমরা জানি না।আমাদের জন্য কেউ বিব্রত অবস্থায় পড়ুক বা যার কারণে উভয়কেই লজ্জা পেতে হবে এমনটি যেন না হয়।
তাই অনুমতি ছাড়া কখনোই কারো রুমে প্রবেশ করা যাবে না।বিশেষ করে মা-বোনদের বিষয় এ সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে।

সবশেষে বলতে চাই,যারা ভুলের জগত থেকে বের হয়ে আসতে চাচ্ছেন এবং ভুল গুলি চিহ্নিত করে তার সমাধান করে সুন্দর জীবন যাপন করতে চাচ্ছেন-“জীবনের আয়না” নামক বইটি তাদের জন্য।বইটির মাধ্যমে আমরা আমাদের ভুল ও তার সমাধান এবং বিভিন্ন আদব-কায়দা জানতে ও শিখতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *