February 25, 2024

গান গাওয়া ও মদ পান করার চেয়ে রাস্তা ঝাড়ু দেওয়াই বেশি সম্মানের ও বেশি উপকারী!

উক্তিঃ গান গাওয়া ও মদ পান করার চেয়ে রাস্তা ঝাড়ু দেওয়াই বেশি সম্মানের ও বেশি উপকারী।
.
উপরের এই কথাটি সৌদির জনপ্রিয় গায়ক ‘ফাহাদ বিন সাঈদ’ – এর। এক সময় যাকে বলা হতো মিউজিকের রাজা এবং আরবের গান জগতের একচ্ছত্র অধিপতি।
.
দীর্ঘ বিশ বছর ধরে মিউজিক ও মাদকের সাথে যাত্রা শেষে শিল্পী ফাহাদ বিন সাঈদ তার এই দুঃখজনক স্বীকারোক্তিটি করেছেন।
.
তিনি কসম করে তার বক্তব্যের সত্যতা প্রমাণ করেছেন। তিনি বলেন – “মহান আল্লাহর কসম! গান গাওয়া ও মদ পান করার চেয়ে রাস্তা ঝাড়ু দেওয়া ও হালাল খাবার খাওয়া অধিক উত্তম ও উপকারী কাজ এবং মানুষের কাছে হাত পাতার চেয়ে তা অধিক সম্মানজনক।”
.
তারপর তিনি আবার কসম খেয়ে বলেন, “বিশ্বের সমস্ত ধনসম্পদ মিলেও ঐ ব্যক্তির মূল্য হবে না, যে নিজ বাড়িতে সম্মান ও শ্রদ্ধার সাথে বসবাস করে, পরিবার পরিজনের দেখা শোনা করে এবং সম্ভাব্য সমস্যা থেকে তাদের হেফাজত করে।”
.
নাচ গান ও বাদ্যযন্ত্র সম্পর্কে বলেন, “আল্লাহ তাআলার শুকরিয়া যে, শয়তানের সব বাদ্য যন্ত্রের কথা একদম ভুলে গেছি, এখন আমার কাছে স্পষ্ট যে, গান বাদ্য করা একটা অনর্থক কাজ, একেবারেই বেহুদা। চিল্লাচিল্লি করে কি পেলাম? সত্যি বলতে কিছু পায়নি।”
.
এই স্পষ্ট ও দ্ব্যর্থহীন স্বীকারোক্তি দেওয়ার পর ফাহাদ বিন সাঈদ তার আশার কথাও শুনিয়েছেন। তিনি বলেন, “আমি আমার ভবিষ্যতের ব্যাপারে আশাবাদী। এটা সত্য যে আমার বয়স হয়ে গেছে, তবুও আমি অতীতে যা কিছু হারিয়েছি সেগুলো পূরণ করে নেওয়ার চেষ্টা করবো। বাকিটুকু আল্লাহর ইচ্ছা। কারাগার থেকে বের হওয়ার পরে আমি ধর্ম প্রচারের কাজ করব। আল্লাহ চাইলে আমি একজন ধর্ম প্রচারক হবো এবং সবাই জানবে যে গায়ক ইবনে সাঈদ এখন ধর্ম প্রচারক ইবনে সাঈদ।
.
আমি আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার কাছে আশাবাদী যে, তিনি আমাকে সুযোগ দিবেন। আমি যুবকদের কাছে যাবো, তাদেরকে আমার দুর্ভাগ্যজনক অভিজ্ঞতার কথা বলবো, যাতে তারা আমার থেকে শিক্ষা ও উপদেশ গ্রহণ করতে পারে। অবশ্যই আমি তাদেরকে জানাবো একজন ব্যক্তির কি করা উচিত। আমি এ ব্যাপারেও আশাবাদী যে, অবশ্যই তারা আমার কথা শুনবে, আমার উপদেশ গ্রহণ করবে।”
.
উৎসঃ
√ রিয়াদ পত্রিকা, সংখ্যা – ৭৯০৭ এবং ৭৯০৮
.
কিছু কথাঃ
এখানে একজন মুসলিমের নিজের দ্বীন থেকে ছিটকে যাওয়ার এবং তা এক পর্যায়ে উপলব্ধি করে ফিরে আসার ইচ্ছা ব্যক্ত হয়েছে। এটা হলো আল্লাহর পক্ষ তার জন্য অশেষ মেহেরবানী। এই ঘটনা বলার পেছনে একটা ই কারণ সেটা হলো আল্লাহ হতে কখনো নিরাশ হতে নেয়। সব কিছুর মধ্যেও আশার আলো দেখা যাবে যদি আপনি খালেস মন থেকে অর্থাৎ খাঁটি অন্তর থেকে আল্লাহর নিকট ফিরে যেতে চান। আল্লাহ এতে কি পরিমাণ খুশি হন সেটা ব্যক্ত করার ক্ষমতা আমার মত অধমের নেয়। ভুল পথে হাটতেই পারেন, কিন্তু সেই ভুল থেকে রবের নিকট ফিরে আসা হলো বড় কথা। আশা করি, আপনারা বুঝবেন।
credit : Shajjad Mustafa  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *